পরীক্ষামূলক প্রচার...
Mohajog-Logo
,
সংবাদ শিরোনাম :

চিনির বদলে খাবারে দেবেন যা

প্রতিদিন মিষ্টি খাবারে চিনি নিশ্চয়ই খান। কিন্তু সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকার জন্য চিনি খাওয়া একেবারেই দিতে হবে বাদ। কারণ চিনি কম তো আয়ু বেশি! খাদ্যতালিকা থেকে চিনি বাদ দেয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন অনেক চিকিৎসকরাই। তবে চিনি নয় কম খেলেন, কিন্তু পুরো চিনি বাদ দেবেন কীভাবে? না কি এর কোনো বিকল্প আছে?

অনেকেই মনে করেন চিনি নিষেধ তাই কৃত্রিম চিনি দিয়ে চালিয়ে দেয়া যাক। কিন্তু এই কৃত্রিম চিনি শরীরের জন্য আরো বেশি ক্ষতিকর। এতে থাকা অ্যাসপার্টেম শরীরে চিনির চেয়েও বেশি ক্ষতি করে। মেদ বৃদ্ধি থেকে শুরু করে শরীরের অন্যান্য সমস্যাকেও বাড়িয়ে দেয়।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, সাধারণ চিনির চেয়ে প্রায় ২০০ গুণ বেশি মিষ্টি অ্যাসপার্টেম কৃত্রিম চিনির অন্যতম উপাদান। কৃত্রিম চিনিতে ওজন তো কমেই না, বরং এতে ব্যবহৃত উপাদান রক্তে শর্করার মাত্রাও খুব একটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। তা হলে উপায়? চিনি ছাড়া পিঠা, পায়েস বা সাধারণ চা কফিও তো বানানো যায় না। তাই চিনি বন্ধ করলে কীভাবে খাবেন এগুলো?

মধু

চিকিৎসকদের মতে, চিনির বদলে খাঁটি মধু মেশান রান্নায়। স্বাদেও মজাদার হবে আর চিনির চেয়ে উপকারও বেশি। চিনির বিকল্প হিসেবে সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর প্রাকৃতিক মধু। ১ টেবিল চামচ মধুতে ক্যালোরির পরিমান ৬৪।

নারিকেলের চিনি

স্বাস্থ্যকর ও একেবারেই ডায়াবেটিক হয় না বলে এই উপাদানের চাহিদা অনেক। নারিকেল থেকে বানানো এই চিনিও ব্যবহার করতে পারেন রান্নায়। কোকোনাট সুগারে ক্যালোরি অনেক কম থাকে। ১ টেবিল চামচ কোকোনাট সুগারে ক্যালোরির পরিমান ৪৫।

গুড়

এটি চিনির চেয়ে বেশি মিষ্টি। তবু এর ক্যালোরি অনেক কম। ১ টেবিল চামচ গুড়ে থাকে মাত্র ৪৭ ক্যালোরি। গুড়ের বদলে গুড়ের বাতাসাও ব্যবহার করতে পারেন রান্নায়।

ম্যাপল সিরাপ

রান্নায় ম্যাপল সিরাপ দিয়ে অনেক বড় বড় রেস্টুরেন্টে রান্না হয়। খাবারকে মিষ্টি যেমন করে, তেমনই এটি শরীরের ক্ষতি করে না। এর ক্যালোরিও অনেক কম।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *