পরীক্ষামূলক প্রচার...
Mohajog-Logo
,
সংবাদ শিরোনাম :

হেগে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলার শুনানি শুরু

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে জাতিগত সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দেশটির সামরিক বাহিনীর গণহত্যার ঘটনায় হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়ার করা মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টা থেকে শুরু হয়েছে এই শুনানি। চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

মঙ্গলবার শুনানির প্রথম দিনে সাক্ষ্য-প্রমাণ দাখিল করছে গাম্বিয়া প্রজাতন্ত্র। আগামীকাল বুধবার একই সময়ে শুরু হওয়া শুনানিতে অংশ নিবে মিয়ানমার। এতে দেশের পক্ষে বক্তব্য রাখবেন নোবেলজয়ী অং সান সু চি।

শুনানির শেষ দিনে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টায় দেড় ঘণ্টার আলোচনায় অংশ নিবে গাম্বিয়া এবং বিরতির পর রাত সাড়ে ৯টায় শুরু হওয়া দেড় ঘণ্টার আলোচনায় অংশ নিবে মিয়ানমার। তবে এ মামলার রায় পেতে আট সপ্তাহ থেকে কয়েক বছর পর্যন্ত লাগতে পারে। তবে শুনানির দোষী সাব্যস্ত হলে মিয়ানমার এবং তাদের সেনা কর্মকর্তাদের কি ধরনের শাস্তি দেয়া হতে পারে এখনও তা স্পষ্ট নয়।

এদিকে গণহত্যার মামলার শুনানিতে মিয়ানমারের পক্ষে অংশ নিতে নেদারল্যান্ডসে অবস্থান করছেন দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি। আর গাম্বিয়ার পক্ষে মামলায় অংশ নিচ্ছেন দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল ও আইনমন্ত্রী আবুবকর মারি তামবাদু। মধ্য আফ্রিকার দেশ রুয়ান্ডার গণহত্যার জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে মামলা পরিচালনার অভিজ্ঞতায় রয়েছে তামবাদুর।

তার সঙ্গে আন্তর্জাতিক আইন বিশেষজ্ঞ যুক্তরাজ্যের প্রফেসর ফিলিপ স্যান্ডসসহ বিশ্ব পরিসরে নেতৃস্থানীয় কয়েকজন আইনজ্ঞের শুনানিতে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।

গাম্বিয়া ও মিয়ানমারের পাশাপাশি বাংলাদেশ এবং কানাডার প্রতিনিধিরা শুনানির সময় পিস প্যালেসে উপস্থিত রয়েছেন। বাংলাদেশ-কানাডার পাশাপাশি নেদারল্যান্ডস নেপথ্যে থেকে গাম্বিয়াকে সহযোগিতা করবে।

এদিকে আইসিজের শুনানিতে সরাসরি কোনো পক্ষ না হলেও গাম্বিয়াকে লজিস্টিক সহায়তা দেবে বাংলাদেশ। এ লক্ষ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (দ্বিপক্ষীয়) মাসুদ বিন মোমেন এক প্রতিনিধি দল নিয়ে দ্য হেগে পৌঁছেছেন। ২০ সদস্যের ওই প্রতিনিধি দলে কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া তিন রোহিঙ্গাও রয়েছেন। দলে আন্তর্জাতিক আইন বিশেষজ্ঞ এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিকেও রাখা হয়েছে। তারা তথ্য-উপাত্ত নিয়ে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলার শুনানিতে উপস্থিত থাকবেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *