পরীক্ষামূলক প্রচার...
Mohajog-Logo
,
সংবাদ শিরোনাম :

‘ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদহার আগের মতোই থাকছে’

অতিরিক্ত বিনিয়োগ বন্ধে ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংকে অনলাইন (অটোমেশন) পদ্ধতি চালু হয়েছে। বুধবার দুপুরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘জাতীয় সঞ্চয় স্কিম অনলাইন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’-এর এ নতুন মডিউলটি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদারসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আজকে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হলেও ইন্টারনাল কিছু কাজ বাকি থাকায় এ কার্যক্রম আগামী ১৭ মার্চ থেকে সারাদেশের প্রধান ডাকঘরগুলোতে শুরু হবে।

ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদহার আগের মতোই অপরিবর্তিত থাকছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদহার আগের মতোই অপরিবর্তিত থাকছে। অটোমেশন সম্পন্ন হওয়ার পর আগামী ১৭ মার্চ থেকে এর সুদহার আগের জায়গায় নিয়ে যাওয়া হবে। এ ছাড়া প্রান্তিক সঞ্চয়কারীদের জন্য এটি ক্রয়ে কিছু ছাড় দেওয়া হয়েছে। দুই লাখ টাকা পর্যন্ত ডাকঘর সঞ্চয় স্কিম কিনলে কোনো টিআইএন (কর শনাক্তকরণ নম্বর) লাগবে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘২০০৮ সালে শেখ হাসিনা দায়িত্ব না নিলে পোস্ট অফিস দেখতে পারতেন না। ফিন্যান্সিয়াল টুলস আমাদের নেই, গ্রামীণ লোকজন কোথায় টাকা নিয়ে যাবে, টাকা কি বালিশের নিচে রাখবে। গ্রামীণ ঐহিত্য ধরে রাখতে চাইলে পোস্টাল বিভাগ আমরা বাতিল করতে পারবো না। সবার হাত ধরে এই প্রতিষ্ঠানটি আবার দাঁড়াবে। যা করবো মানুষের স্বার্থে করবো, যা করবো সেটি যেন মিসউইজ না হয়। কারো কোনো সুবিধা হরণ করা হয়নি, কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা যাবে সুবিধা আরও বাড়ানো হয়েছে।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘ডিমান্ড ডিপোজিট ৭ দশমিক ৫ এবং ফিক্সড টাইমে হবে ১১ পয়েন্ট ২৮ যা আগের রেইট তাই থাকছে। একটি নিয়মের মধ্যে আনতে চাচ্ছি মিসইউজ করুক তা চাই না। যে আয়টা করবে এখন থেকে তা ট্যাক্স ফ্রি না, আয়কর দিতে হবে এজন্য টিন নম্বর ও ন্যাশনাল আইডি নিচ্ছি। এনআইডি নিচ্ছি তাদের চিহ্নিত করার জন্য কত টাকা করলো অতিরিক্ত করলো কিনা। দেশের যেকোনো জায়গায় করলে লিমিট ক্রস করতে পারবে না এবং ট্যাক্স এর আওতায় আসবে। সরকার রাজস্ব আয় করবে।’

বর্তমানে পাঁচ বছর মেয়াদি বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক, পরিবার ও পেনশনার- এই চার ধরনের জাতীয় সঞ্চয় স্কিম রয়েছে। আর ডাকঘরের নিজস্ব সঞ্চয় স্কিমের নাম ‘ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক’, যা সরকারের জাতীয় সঞ্চয় স্কিমের বাইরে। যদিও এসব স্কিমের ধরন প্রায় একই রকম।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *