1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১৮ অপরাহ্ন

যন্ত্রপাতি নষ্ট থাকলে রোগীর মৃত্যুও হতে পারে

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই, ২০১৬
  • ১১৪ বার

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম হাসপাতালের যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণে পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের আরো দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, হাসপাতালের যন্ত্রপাতি নষ্ট থাকার কারণে রোগীর মৃত্যুও হতে পারে। তাই যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণে সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে। সংশ্লিষ্টদের মনে রাখতে হবে হাসপাতালের যন্ত্রপাতি শুধু একটি মেশিন নয়, রোগীর জীবন-মৃত্যু এর উপর নির্ভর করে। এজন্য ইতিবাচক মানসিকতার সঙ্গে হাসপাতাল ব্যবস্থাপনার কাজ করতে হবে। যন্ত্রপাতি নষ্ট হয়ে পড়ে থাকা দায়িত্বে অবহেলার সামিল।

বুধবার (২০ জুলাই) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সরকারি হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলামসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের ঊধর্বতন কর্মকর্তারা এবং বিভিন্ন হাসপাতালের পরিচালকগণ ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, সরকার জনগণকে সম্পৃক্ত করে হাসপাতাল পরিচালনার কাজ করে যাচ্ছে। এজন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যকে হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

তাদের নিজ নিজ হাসপাতালের রক্ষণাবেক্ষণে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। তিনি বলেন, যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণে প্রয়োজনে বেসরকারি সংস্থাকে সম্পৃক্ত করা যায় কিনা সরকার সেদিকটি বিবেচনা করছে। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্থার প্রস্তাবনা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে সরকারি বিধি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এর আগে সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বিদ্যমান ১০ ও ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালসমূহের সেবার মান বৃদ্ধিকরণ সংক্রান্ত সভায় সভাপতিত্বে মন্ত্রী বলেন, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিদ্যমান ১০ অথবা ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল যেন জনগণকে প্রয়োজনীয় সেবা দিতে সক্ষম হয় সে লক্ষ্যে সরকার কাজ শুরু করেছে।

প্রয়োজনে পরীক্ষামূলকভাবে কয়েকটি হাসপাতাল পরিচালনায় বেসরকারি সংস্থার সহায়তা নেওয়া যায় কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog