1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১৩ অপরাহ্ন

ব্যায়াম শুরুর আগে করণীয়

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৬
  • ২৪৬ বার

যারা শরীর ফিট রাখতে ব্যায়াম শুরু করতে যাচ্ছেন তাদের জন্য ব্যায়াম শুরুর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে ‘ওয়ার্ম আপ’। ওয়ার্ম আপ-এর মাধ্যমে শরীর ও মন দুটোই ব্যায়ামের জন্য প্রস্তুত হয়। কারণ ওয়ার্ম আপের ফলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায়, শরীর ও মাসেলের তাপমাত্রা ধীরে ধীরে বাড়ে, মাসেলের কাজ করার গতিও বাড়ে, শ্বাস-প্রশ্বাস গতিতে সামঞ্জস্য সৃষ্টি হয়। তাছাড়া এর মাধ্যমে ব্যায়ামের ফলে ইনজুরি, মাসেল পুল, হার্ট অ্যাটাকসহ নানা সমস্যার কাছ থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

অজ্ঞতার কারণে অনেকেই ব্যায়াম শুরুর আগে ওয়ার্ম আপ করেন না। মনে রাখবেন ওয়ার্ম আপ না করলে আপনার শরীরের ক্ষতি তো হবেই পাশাপাশি বড়ো ধরণের বিপদও হতে পারে। প্রতিটি ব্যায়ামের ওয়ার্ম আপের নিয়ম আলাদা।  তাই যখন যে ব্যায়াম করবেন, সেই ব্যায়ামের কী ওয়ার্ম আপ হবে তা আগেই জানা দরকার-

ওয়ার্ম আপ ব্যায়াম হবে ধীর গতির ও সহজ ব্যায়াম এবং ব্যায়ামের ক্ষেত্রে আপনার তীব্রতাও কম হবে।

ওয়ার্ম আপ ব্যায়াম এর তীব্রতা কত হবে তা নির্ভর করে একজন ব্যক্তির শারীরিক ফিটনেস ও কোন ধরনের ব্যায়াম করা হবে,তার উপর।

অনেক ধরনের ওয়ার্ম আপ ব্যায়াম আছে। যেমন : ধীরে ধীরে হাঁটা, ডাইনামিক স্ট্রেচিং, ধীরে সাঁতার কাটা, সাইকেল চালানো, সহজ এরোবিকস করা, জগিং করা ইত্যাদি।

ওয়ার্ম আপের জন্যে ৫ মিনিট যে কোনো প্রকার ব্যায়াম করা উচিত (ধীরে হাঁটা, জগিং করা ইত্যাদি)। তারপর ৫ মিনিট স্ট্যাটিক স্ট্রেচিং করতে পারেন মাসেলগুলোকে সচল করার জন্যে।

আসলে কমপক্ষে ১০ মিনিট ওয়ার্ম আপ করা ভালো। কারণ প্রথম ১০ মিনিটের পরে আপনার মাসেলগুলোতে ব্যায়াম কাজ করা শুরু করবে। আপনার শরীরের তাপমাত্রা বাড়বে। ক্যালরিও বার্ন করা শুরু করবে।

ওয়ার্ম আপ করার পর যদি দেখেন আপনি হালকা ঘামছেন, তার মানে আপনি এখন ব্যায়াম করার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু ওয়ার্ম আপ করার ফলে যদি আপনি ক্লান্তি অনুভব করে, তবে বুঝতে হবে ওয়ার্ম আপ সঠিকভাবে হয়নি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog