1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha : Sardar Dhaka
  2. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
  3. rafiqul@mohajog.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  4. sardar@mohajog.com : Shahjahan Sardar : Shahjahan Sardar
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

এমপি লিটন হত্যায় জড়িত সন্দেহে আটক ১৮

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ২১৯ বার

প্রতিবেদক : গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ১৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার দিনগত রাত থেকে রোববার  দুপুর পর্যন্ত সুন্দরগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। তবে মামলার তদন্তের স্বার্থে কারও নাম-পরিচয় জানায়নি পুলিশ। সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান জানান, আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আজ রোববার সকাল সোয়া ১০টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহতের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। এরপর নারায়ণ চন্দ্র সাহা সাংবাদিকদের বলেন, ‘সাংসদ লিটনের বুকের ডান দিকে একটি গুলি বিদ্ধ হয়ে বেরিয়ে যায়। একটি ভেতরে আটকা পড়ে। এটি বের করা হয়েছে। এ ছাড়া তাঁর বাঁ হাতেও তিনটি গুলি লাগে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন শিগগিরই দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় মনজুরুল ইসলাম লিটনকে তাঁর গ্রামের বাড়ি সুন্দরগঞ্জের সাহাবাজ গ্রামের ড্রয়িংরুমে (বসার কক্ষে) ঢুকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে মোটরসাইকেলযোগে পালিয়ে যায়। এরপর সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।
আজ রোববার রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘর থেকে মনজুরুল ইসলামের মরদেহ নিয়ে দুপুর ১২টায় রংপুর পুলিশ লাইনস মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর তাঁর মরদেহ হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়। জানাজায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করীম রাজু, রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, পুলিশের রংপুর রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) খন্দকার গোলাম ফারুক, জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
সাংসদ হত্যার প্রতিবাদে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আজ সকাল থেকে হরতাল চলছে। বামনডাঙ্গা স্টেশনে সান্তাহারগামী একটি ট্রেন সকাল সাড়ে আটটা থেকে আটকে রেখেছে সাংসদের সমর্থকেরা। সান্তাহার-লালমনিরহাট রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সুন্দরগঞ্জের বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। সাংসদের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত হরতাল চলবে বলে জানিয়েছেন বামনডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক নাদিম হোসেন।
গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তিনি তাঁদের নাম বলেননি।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ এ ঘটনায় জামায়াত অথবা উগ্রপন্থীদের সন্দেহ করছে। সুন্দরগঞ্জের শিশু শাহাদাত হোসেন সৌরভকে গুলি করে হত্যাচেষ্টার মামলার আসামি ছিলেন সাংসদ মনজুরুল। তিনি জামিনে ছিলেন।

উল্লেখ্য, শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নে শাহবাজ এলাকায় নিজ বাড়িতে আততায়ীর গুলিতে আহত হন লিটন। গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. বিমল কুমার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 Mohajog