1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০১:১৭ পূর্বাহ্ন

তিন বছরে ৭ বার সমাবেশ করতে দেয়নি সরকার: বিএনপি

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৯ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ৭৯ বার

প্রতিবেদক :সরকার বিএনপিকে রাজনৈতিক কর্মসূচি থেকে দূরে সরিয়ে রাখছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার দুপুরে রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেছেন। তিনি আরো বলেন, “গত ৭ জানুয়ারি আমাদেরকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়নি। এটা নতুন নয়, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি পর থেকে আমরা এখন পর্যন্ত ৭ বার সরকারের বিশেষ করে পুলিশের কাছে সমাবেশ করার অনুমতি চাইলে, তারা দেয়নি।

“আপনারা আমাদের রাস্তায় বেরুতে দেবেন না, মানববন্ধন করতে দেবেন না, আমাদের ছেলে-মেয়েদের লাঠিপেটা করে তাড়িয়ে দেন। অথচ আপনারা রেগুলারলি রাস্তায় নামছেন। গত ৫ জানুয়ারিও ঢাকায় ২/৩ জায়গায় সমাবেশে করেছেন, মিছিল করেছে।

“অথচ সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দলকে আপনারা সভা-সমাবেশ করতে দেবে না। তাহলে পুলিশকে এখন বলে দিলেই হয়, দেয়ার আর নাউ টু রুলস- একটা হচ্ছে আওয়ামী লীগের জন্য, আরেকটা হচ্ছে রেস্ট অব দ্য পিপলস।”

দশম সংসদ নির্বাচনের তৃতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি গত ৭ জানুয়ারি সমাবেশের জন্য মহানগর পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়েও পায়নি।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির পর থেকে প্রতিবছর দিবসটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা’ দিবস হিসেবে তারা পালন করে আসছে। আর আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে ৫ জানুয়ারিতে দলীয় কার্যালয়ের সামনে আওয়ামী লীগের সমর্থক সংগঠন প্রজন্ম লীগের কর্মীরা তাণ্ডব চালিয়েছে বলে অভিযোগ করে এর সমালোচনা করেন ফখরুল।

দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, “প্রতিদিন গুম-খুন-হত্যা-ধর্ষণ-রাহাজানি-ডাকাতির ঘটনা ঘটছে। সবচেয়ে মারাত্মক ব্যাপার যেটা থানার মধ্যে মানুষকে ধরে নিয়ে এসে ঘুষ খাওয়ার জন্য তাকে যেভাবে ঝুলিয়ে উল্টো করে নির্যাতন করে টাকা আদায় করা হয়েছে। তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে একটা মামলায় জড়িয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এরকম ঘটনা একটা নয়, অহরহ ঘটছে।
“এভরিবডি ইজ পেনিকড যে কখন তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে চাঁদা চাইবে। দিতে না পারলে তার ওপর শারীরিক নির্যাতন হবে, সমূহ বিপদ নেমে আসবে, জঙ্গি মামলা কিংবা সন্ত্রাসী মামলায় তাকে জড়িয়ে দেওয়া হবে।”

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মইন খান, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপারসনের ‍উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল কবির খোকন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক মামুন আহমেদ, আসাদুল করীম শাহিন, হেলেন জেরিন খান, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog