1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha : Sardar Dhaka
  2. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
  3. rafiqul@mohajog.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  4. sardar@mohajog.com : Shahjahan Sardar : Shahjahan Sardar
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

৬% কালো টাকার জন্য ৮৬% নোট বাতিল সমর্থনযোগ্য নয়: অমর্ত্য সেন

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১১ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ২৮৭ বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অমর্ত্য সেননোট বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নেওয়া নয়, বরং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেওয়া। ভারতের ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন।

অমর্ত্য সেন বলেন, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত কালো টাকা খুঁজে বের করতে ব্যর্থ হয়েছে।

অমর্ত্য সেন মনে করেন, এ রকম সিদ্ধান্ত রিজার্ভ ব্যাংক কখনোই নেয়নি, বরং প্রধানমন্ত্রীই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ বিষয়ে রিজার্ভ ব্যাংকের সায় নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন এই অর্থনীতিবিদ। মনমোহন সিং বা অন্য কেউ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের দায়িত্বে থাকলে এ সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধা করতেন বলেও তাঁর মত৷

মানুষ কেন নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করছে—এমন প্রশ্নের জবাবে অমর্ত্য সেন বলেন, সাধারণ মানুষের রুটিরুজিতে থাবা বসেছে। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার কাঠামোর পায়েও কুড়াল মেরেছে নোট বাতিলের এই একতরফা সিদ্ধান্ত। অথচ নিজেদের মধ্যে ঐক্য না থাকায় বিরোধীরা একজোট হয়ে এ সিদ্ধান্তের জোরালো প্রতিবাদ করতে পারেনি। ফলে আগাগোড়া ভুল পদ্ধতিতে নেওয়া এই সিদ্ধান্ত যে কতখানি গলদে ঠাসা, এখনো তা আঁচ করতে পারেননি সাধারণ মানুষ। মানুষের সংশয়ের সুবিধা (বেনিফিট অব ডাউট) পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা নিয়ে আগেই প্রশ্ন তুলেছিলেন অমর্ত্য সেন। এর ফলে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি থমকে যাবে বলে আশঙ্কাও প্রকাশ করেছিলেন তিনি৷ এবার সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকেই এই সিদ্ধান্তের জন্য দায়ী করলেন তিনি।

কালো টাকা কখনোই ভারতের অর্থনীতির জন্য বড় সমস্যা ছিল না জানিয়ে অমর্ত্য সেন বলেন, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া উচিত ছিল। ৬ শতাংশ কালো টাকার জন্য ৮৬ শতাংশ নোট বাতিলকে কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না।

অমর্ত্য সেনের মতে, শুধু জিডিপির বিচারে এই ক্ষতি মাপা যাবে না৷ এই নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের কারণে মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। চাষবাদ নষ্ট হচ্ছে, নারীরা কাজ পাচ্ছেন না, যা দেশের অর্থনীতিকে আরও পেছনে ফেলে দেবে।

গত ৮ নভেম্বর ভারতে অপ্রত্যাশিতভাবে ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিলের ঘোষণা দেয় মোদি সরকার। এই মানের নোট পাল্টে ব্যাংক থেকে ছোট মানের নোট সংগ্রহ করতে নির্দেশ দেওয়া হয় জনগণকে। সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 Mohajog