1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৬:৫৮ পূর্বাহ্ন

দেশে ই-টিআইএনধারী এখন ২৭ লাখ

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ১০৬ বার

প্রতিবেদক : ছয় মাসেই বাংলাদেশে নিবন্ধিত করদাতার সংখ‌্যা নয় লাখ বেড়েছে; যাকে বড় ধরনের সাফল‌্য হিসেবে দেখছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। রাজস্ব আয়ের অন‌্যতম প্রধান উৎস হিসেব আয়করকে চিহ্নিত করে কর শনাক্তকরণ নম্বরধারীর সংখ‌্যা নিয়ে গত জুনে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায়ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তখন কর শনাক্তকরণ নম্বরধারীর (টিআইএন) সংখ‌্যা ছিল ১৮ লাখ, তার মধ‌্যে ১২ লাখ বছরান্তে আয়কর বিবরণি জমা দিয়েছিলেন। বক্তৃতায় ওই সংখ‌্যাটি ‘লজ্জাজনক’ বলেছিলেন অর্থমন্ত্রী।

তখন তিনি করদাতা অর্থাৎ আয়কর বিবরণির সংখ‌্যা ২০১৭ সালে ১৫ লাখে উন্নীত করতে রাজস্ব বোর্ড বা এনবিআরকে লক্ষ‌্য দিয়েছিলেন। তারপর করদাতার সংখ‌্যা বাড়াতে নানামুখী পদক্ষেপ নেয় সংস্থাটি।

মঙ্গলবার এনবিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১৭ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ই-টিআইএনধারী করদাতার সংখ্যা ২৭ লাখ অতিক্রম করেছে।

“জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নানামুখী পদক্ষেপের ফলে ই-টিআইএন নিবন্ধনধারী করদাতার সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে,” বলা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

এখন ইন্টারনেটের মাধ‌্যমে ঘরে বসেই ই-টিআইএন নেওয়া যাচ্ছে; দেওয়া যাচ্ছে করও। কর কার্যালয়গুলোকে হয়রানিমুক্ত করতেও নানা পদক্ষেপ চলছে।

আয়কর আদায় বাড়ানোর গুরুত্ব তুলে ধরে এনবিআর বলেছে, “জাতীয় অর্থনীতির কাঙ্ক্ষিত সাফল্য অর্জনে আয়কর আহরণের কোনো বিকল্প নেই।”

২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে মোট ২ লাখ ৩ হাজার ১৫২ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য ধরেছে এনবিআর।

এরমধ্যে আয়কর থেকে আদায়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছে ৭১ হাজার ৯৪০ কোটি টাকা।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের মূল বাজেটে আয়কর থেকে ৬৪ হাজার ৯৭১ কোটি টাকা আদায়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছিল, কিন্তু তা হয়নি। সংশোধিত বাজেটে তা কমিয়ে ৫১ হাজার ৭৯৬ কোটি টাকায় নামিয়ে আনা হয়।

অর্থমন্ত্রী মুহিতের তথ‌্য অনুযায়ী, সারাবিশ্বের মধ্যে কর-জিডিপির অনুপাত বাংলাদেশে অত্যন্ত নিম্নস্তরে রয়েছে। বর্তমানে তা জিডিপির ১০ দশমিক ৩ শতাংশ। প্রতিবেশী দেশগুলোতে এ হার ২০ থেকে ৩২ শতাংশ পর্যন্ত।

নানা প্রয়োজনে অনেকেই করদাতা হিসেবে নিবন্ধিত হন বা ই-টিআইএন সনদ নেন। তবে সবাই বছরান্তে আয়কর বিবরণী দাখিল করেন না।

গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১৮ লাখ টিআইএনধারীর মধ‌্যে ১২ লাখ বিবরণি জমা দিয়েছিলেন।

চলতি বাজেটে করমুক্ত আয়ের সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। অর্থাৎ যাদের আয় বছরে আড়াই লাখ টাকার বেশি তাদের আয়কর বিবরণি বা রিটার্ন দাখিল করতে হবে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog