1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:১৪ অপরাহ্ন

মায়ানমার সরকার সব মুসলিম রোহিঙ্গাকে দেশ থেকে বের করে দিতে চায়: জাতিসংঘ

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ, ২০১৭
  • ১১৯ বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  জাতিসঙ্ঘের মায়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, দেশটির সরকার নিজ ভূখণ্ড থেকে সব রোহিঙ্গা মুসলমানকে হয়ত বের করে দিতে চাচ্ছে।

জেনেভায় জাতিসঙ্ঘ মানবাধিকার পরিষদের বৈঠকে দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

ইয়াংহি লি বলেন, মায়ানমার থেকে সব রোহিঙ্গাকে বের করে দেয়ার লক্ষ্যেই হয়ত তাদের বিরুদ্ধে সঙ্ঘবদ্ধ নির্যাতন এবং ভয়াবহ সহিংসতা চলছে।

দুই দফা মায়ানমার সফর করা লি বলেন, ঘরে ঘরে তল্লাশির নামে দেশটিতে রোহিঙ্গাদের জীবন বিষিয়ে তোলা হয়েছে। এ ছাড়া, গোলযোগপূর্ণ রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি ভাঙ্গার তৎপরতাও অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে জাতিসংঘ মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের হত্যা এবং অন্যান্য মানবাধিকার লঙ্ঘনের গুরুতর ঘটনাগুলো একটি স্বাধীন কমিশনের মাধ্যমে দ্রুত ও নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করার ডাক দিয়েছে।

এ নিয়ে জাতিসংঘ সোমবার একটি রিপোর্টও প্রকাশ করেছে। জাতিসংঘের বিশেষ র‍্যাপোর্টিয়ার ইয়াঙ্গি লি এই রিপোর্ট করার আগে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সফর করেছেন।

মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে গত পাঁচ মাস ধরে সেনা অভিযান চলছে এবং সেখানে ব্যাপকহারে হত্যা, ধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটছে বলে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমরা অভিযোগ করছে। এদের সংখ্যা অন্তত ৭০ হাজার।

ইয়াঙ্গি লি তাদের সাথে কথা বলেছেন, তবে মায়ানমার সফরের সময় রাখাইন প্রদেশের সংঘাতপূর্ণ এলাকাগুলোতে তাকে যেতে দেয়া হয় নি।

তবে এই রিপোর্ট দেয়ার আগেই তিনি বলেছিলেন যে তিনি যা ভেবেছিলেন বাস্তবে পরিস্থিতি আরো অনেক বেশি খারাপ বলে তার মনে হয়েছে।

আজকের এই রিপোর্টে তিনি মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর যে নির্যাতন চলছে, তার স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, গলা কেটে হত্যা, নির্বিচারে গুলি, বাড়িঘরে আগুন লাগানো, বাচ্চাদের আগুনে ছুঁড়ে ফেলা, গণ ধর্ষণসহ ভয়াবহ সব নির্যাতনের বর্ণনা শুনেছেন।

তিনি এসব অভিযোগ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার আহ্বান জানান।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog