1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

রিজার্ভ চুরির টাকা ফেরত আসবেই : অর্থমন্ত্রী

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ, ২০১৭
  • ১০৬ বার

প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া অর্থের পুরোটাই ফেরত পাওয়া যাবে বলে আশার কথা শুনিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে রিজার্ভ চুরি সংক্রান্ত একটি বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মুহিত বলেন, “বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির টাকা দেশে ফেরত আসবেই। এ টাকা ফেরত পেতে ফিলিপাইন সরকারও সার্বিক সহযোগিতা করছে।”

টাকা ফেরতের ব্যাপারে কেউ অসহযোগিতা করছে কিনা- প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী বলেন, “না, এ বিষয়ে কেউ অসহযোগিতা করছে না। এমনকি ফিলিপাইনও আমাদের সহায়তা করছে।”

গত ২৩ মার্চে বাংলাদেশ ব্যাংক ভবনে অগ্নিকাণ্ড সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “শর্ট সার্কিট থেকে সৃষ্ট এ অগ্নিকাণ্ডে তেমন গুরুত্বপূর্ণ কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।”

আট কোটি ১০ লাখ ডলার রিজার্ভ চুরির পর এক বছরে দেড় কোটি ডলার ফেরত এলেও বাকি অর্থ ফেরতে সরকারের তোড়জোড়ের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ভবনের ওই আগুনের ঘটনাকে ‌‘রহস্যজনক’ ও ‘পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র’ বলে আখ্যায়িত করে বিএনপি।

বিএনপিসহ বিভিন্ন মহল থেকে রিজার্ভ চুরি সংক্রান্ত বিভিন্ন নথিপত্র আগুনে পুড়ে যাওয়ার আশঙ্কার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কোনো নথি পোড়েনি বলে আগুনের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংক গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নিরাপত্তার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী মুহিত বলেন, ব্যাংকের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ২০০৮ সাল থেকে যুগোপযোগী করার কাজ চলছে। ২০১৩ সালে শেষ হলেও এখনও রিপ্লেসমেন্ট করা হচ্ছে।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভুয়া সুইফট বার্তা পাঠিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অফ নিউ ইয়র্কে রাখা বাংলাদেশের রিজার্ভের আট কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপিন্সের রিজল ব্যাংকে পাঠানো হয়েছিল। ওই অর্থ পরে জুয়ার টেবিলে চলে যায়।

ঘটনা তদন্তে বাংলাদেশের নিযুক্ত করা সিলিকন ভ্যালির সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ফায়ারআই এ সাইবার চুরিতে উত্তর কোরিয়া ও পাকিস্তানের দুটি হ্যাকার গ্রুপের সম্পৃক্ততার তথ্য ফরেনসিক পরীক্ষায় পাওয়ার কথা জানিয়েছিল।

বিশ্বজুড়ে তোলপাড়ের মধ্যে ফিলিপিন্সের সিনেট কমিটি এ ঘটনার তদন্ত শুরুর পর এক ক্যাসিনো মালিকের কাছ থেকে দেড় কোটি ডলার উদ্ধারের পর তা ফেরত পায় বাংলাদেশ। বাকি অর্থ উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। অর্থ উদ্ধারে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ফিলিপিন্স সফরও করে এসেছেন।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রী আনিসুলহক ছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, অর্থ সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক ও সিআইডি প্রধান শেখ হিমায়েত হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog