1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha : Sardar Dhaka
  2. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
  3. rafiqul@mohajog.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  4. sardar@mohajog.com : Shahjahan Sardar : Shahjahan Sardar
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৬:২৮ অপরাহ্ন

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় সাক্কু-সীমা

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭
  • ১৭১ বার

প্রতিবেদক: বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে বহুল আলোচিত কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবের আমেজের মধ্যে জঙ্গি আস্তানা ঘিরে নতুন উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে ভোটার-প্রার্থীদের মধ্যে। এরপরও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে আশা করছেন প্রার্থীরা।

এরই মধ্যে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সামগ্রী। নির্বাচন কমিশন যেকোনো মূল্যে সুষ্ঠু নির্বাচন করার অঙ্গিকার করেছে। নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) মোতায়েন করা হয়েছে। বিকাল থেকে তাদের টহল জোরদার করেছে।

নির্বাচনী এলাকা ঘুরে বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচনে প্রার্থী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা এবং বিএনপির মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর মধ্যে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। তারা উভয়েই নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী।

বিএনপির প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু বলেছেন, প্রচারণার মাঠে যেধরনের গণজোয়ার লক্ষ্য করেছি তাতে নির্বাচন সুষ্ঠু হরে আমি বিজয়ী হবো, এতে কোনো সন্দেহ নেই। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমাও বলেছেন, নির্বাচনী প্রচার নেমে ভোটারদের যেধরনের মনোভাব লক্ষ্য করেছি তাতে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। তবে উভয় প্রার্থীই বলেছেন, নির্বাচন সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তাতে হেরে গেলেও তারা ফলাফল মেনে নিবেন।

প্রার্থীরা যাই বলুক প্রধান দুদলের শীর্ষ পর্যায়ের নীতি-নির্ধারক ও নেতাদের মধ্যে এ নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা রয়েছে। বুধবার দুপুরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে বিএনপির ৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার সাথে বৈঠক করে তাদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান অভিযোগ করে বলেন, ‘কুমিল্লায় আমাদের এজেন্ড ও তাদের পরিবারকে ভয়ভীতি, মারধর, প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, আমাদের এজেন্ডরা কেন্দ্রে যাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছে, সেখানে কিভাবে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে এখন প্রশ্ন।

ক্ষমতাসীনদের এ নির্বাচন ইজ্জতের ব্যাপার, তারা যেকোন ভাবে জোর জবরদস্তি করে এ নির্বাচনে জয়ী হতে চায়, তাই তারা ভোট চুরিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে।’

এছাড়া বিএনপির অন্যান্য নেতাদের ভাষ্যমতে, নির্বাচনে ভোট চুরির নীলনকশা একেঁছে ক্ষমতাসীন দল, তারা চায় ভোট চুরি করে জয়ী হতে।

এদিকে এর আগে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধি দল প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার সাথে দেখা করে তাদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন। তাদের ভাষ্যমতে, নির্বাচন কমিশন অতিমাত্রায় নিরপেক্ষ দেখাতে গিয়ে কমিশন তাদের প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করছে। ফলে তারা সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন।

তবে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্যান্য কমিশনাররা কুসিক নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ করার জন্য  যা যা করার দরকার তাই করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেছেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 Mohajog