1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha : Sardar Dhaka
  2. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
  3. rafiqul@mohajog.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  4. sardar@mohajog.com : Shahjahan Sardar : Shahjahan Sardar
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন

জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে ‘ইসলামী মহাজোট’র আত্মপ্রকাশ

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭
  • ২২৬ বার

প্রতিবেদক: জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতৃত্বে ‘ইসলামী মহাজোট’ ঘোষণা করলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এই জোটের আত্মপ্রকাশ হয়।

জাতীয় ইসলামি মহাজোটের সূত্রে জানা গেছে, ৫টি ঘোষণাকে প্রতিপাদ্য করে নতুন ঐক্যেজোটের ঘোষণা দেয়া হয়।

এই পাঁচটি ঘোষণা হলো- এক. নতুন জোট বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের স্বাধীনতা, ধর্মীয় অধিকার নিশ্চিত করে পরিপূর্ণ জীবনযাপনের লক্ষ্যে সবার অন্ন-বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা নিশ্চিত করা। দুই. সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদ দমনে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালানো। তিন. নারী ও শিশু অধিকার বাস্তবায়ন ও নির্যাতন প্রতিরোধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ। চার. জলবায়ু ও পরিবেশ বিপর্যয় থেকে দেশরক্ষা। পাঁচ. আলেম সমাজের অধিকার নিশ্চিত ও ইসলামি মূল্যবোধ সুমন্নত রাখা।

সূত্রমতে, ছোট দলগুলোকে নিয়ন্ত্রণের সুবিধার্থে ইসলামি দলগুলোকে একটি জোট ও অন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে একত্র হয়ে আরেকটি জোট গঠন করতে বলেছিল জাতীয় পার্টি। এই দুটি জোট নিয়ে মহাজোট করতে চাইছে দলটি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্ন নেওয়া হয়নি। তাই অনুষ্ঠান শেষে এরশাদ বেরিয়ে যাওয়ার সময় মহাজোট নিয়ে সাংবাদিকেরা প্রশ্ন করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানকে। জবাবে এরশাদ বলেন, ‘আমরা আরেকটি মহাজোট করব।’

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে নবগঠিত জাতীয় ইসলামি মহাজোটের আহ্বায়ক আবু নাসের ওয়াহেদ লিখিত বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, সমমনা ৩৪টি রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে নতুন শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হতে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আয়োজকদের উদ্দেশে এরশাদ বলেন, ‘আপনাদের মধ্যে ঐক্য নেই। যদি ইসলামি দর্শনে বিশ্বাসী দলগুলোর মধ্যে ঐক্য থাকত, তাহলে আপনারা আজ ক্ষমতায় থাকতেন।’ তিনি বলেন, ‘আমরা কী চাই? স্বাধীনতার চেতনা, ইসলামি মূল্যবোধ এবং বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী সবাইকে নিয়ে একটি জোট করতে। এর নেতৃত্ব যদি আমাকে দেন, তাহলে খুশি হব। আশা করি, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমাদের আশা পূর্ণ হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এইচ এম এরশাদ বলেন, ‘ইসলামি মূল্যবোধ এ দেশে প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে আমাদের কোনো মুক্তি নেই। সমাজে শান্তি আসবে না।’

সংবাদ সম্মেলন শেষে এরশাদ দলের নেতা-কর্মীদের নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের নিচতলায় সদস্যদের জন্য নির্ধারিত জায়গায় বসে চা পান করেন। দোতলা থেকে নামার সময় দলের নেতা-কর্মীরা ‘কে বলেছে স্বৈরাচার, দুই গালে জুতা মার’ স্লোগান দিতে থাকেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দ আবুল হোসেন ও সুনীল শুভ রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আলমগীর সিকদার, কেন্দ্রীয় নেতা জাহিদ বিপ্লব প্রমুখ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 Mohajog