1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৫৭ অপরাহ্ন

ফের জাতীয় ‍ক্রিকেট দলের স্পন্সর রবি

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৪ মে, ২০১৭
  • ১৫৬ বার

স্পোর্টস ডেস্ক: সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আবারও বাংলাদেশ জাতীয় দল, নারী দল ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের টিম স্পন্সর হলো রবি। আজ বিকেল ৪ টায় ছিল নতুন টিম স্পন্সরশিপের টেন্ডার জমা দেয়ার শেষ সময়। বিকেল সাড়ে চারটায় শেরেবাংলায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অফিসে সাংবাদিকদের সামনে বিসিবির মার্কেটিং কমিটির চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ আগামী দুই বছরের জন্য মাশরাফিদের টিম স্পন্সর হিসেবে রবির নাম ঘোষণা করেন।

স্পন্সরশীপ কেনার জন্য আগ্রহ দেখিয়েছে যে সব কোম্পানি গুলো, রবি, প্রাণ, গ্রামীণফোন, মেঘনা গ্রুপের ব্র্যান্ড ফ্রেশ ও বিকাশ। বিসিবির ফ্লোর প্রাইস ৬০ কোটি টাকা। অবশ্য গ্রামীণফোন, মেঘনা গ্রুপের ব্র্যান্ড ফ্রেশ ও বিকাশের আর্থিক শর্ত বাদ পড়েছে। টিকে আছে রবি আর প্রাণ। এ দুইয়ের মধ্যেই হয়েছে লড়াই। সেই লড়াই ঠিকে গেল রবি।

আগামী দুই বছরের (১ জুলাই ২০১৭ থেকে ১ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত) জন্য টিম স্পন্সর বাবদ রবি কত টাকা দিয়েছে, তা আনুষ্ঠানিকভাবে জানাননি বিসিবির মার্কেটিং কমিটির চেয়ারম্যান। তবে বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে, রবির প্রদেয় টাকার পরিমাণ ৬০-৬১ কোটির মধ্যে।

দেশের চার-পাঁচটি কর্পোরেট হাউজ অংশ নিয়েছিল এই টেন্ডারে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের টিম স্পন্সরশিপ স্বত্ব কেনায় আগ্রহ দেখিয়েছিল প্রাণ গ্রুপ, রবি, গ্রামীণফোন, মেঘনা গ্রুপের ব্র্যান্ড ফ্রেশ ও বিকাশ। বিসিবির ফ্লোর প্রাইস ছিল ৬০ কোটি টাকা। তবে আগেই গ্রামীণফোন, মেঘনা গ্রুপের ব্র্যান্ড ফ্রেশ ও বিকাশের আর্থিক শর্ত গ্রহণযোগ্য হয়নি।

শেষ পর্যন্ত রবির সঙ্গে লড়াইয়ে ছিল প্রাণ গ্রুপ। প্রাণ গ্রুপকে পেছনে ফেলে জাতীয় দলের টিম স্পন্সর হলো রবি। বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, প্রাণ গ্রুপের অফার ছিল ফ্লোর প্রাইসের চেয়ে কম।

নতুন টিম স্পন্সরশিপ নিয়ে বিসিবির মার্কেটিং কমিটির চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ বলেন, ‘আগামী দুই বছরের জন্য রবিই বাংলাদেশ জাতীয় দলের টিম স্পন্সর। লক্ষ্য পূরণ হয়েছে। আমরা খুশি।’

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog