1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha : Sardar Dhaka
  2. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
  3. rafiqul@mohajog.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  4. sardar@mohajog.com : Shahjahan Sardar : Shahjahan Sardar
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

শিশুদের চেয়ে বেশি প্রতিযোগিতায় অভিভাবকরা : রাষ্ট্রপতি

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৮ মে, ২০১৭
  • ৯১ বার

প্রতিবেদক : অভিভাবকদের প্রতিযোগিতার আগ্রহের কারণে শিশুদের ধারণ ক্ষমতার কথা চিন্তা করা হয় না উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, এতে করে শিশুদের স্বাভাবিক বেড়ে ওঠা বাধাগ্রস্ত হয়। বৃহস্পতিবার রাজধানীতে জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “আজকাল শিশুদের লেখাপড়া নিয়ে জীবনের শুরুতেই চরম প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এ প্রতিযোগিতায় শিশুদের চেয়ে তাদের মা-বাবা ও অভিভাবকদের আগ্রহই বেশি দেখা যায়। শিশুদের ধারণ ক্ষমতা চিন্তা না করে কে কয়জন টিউটরের কাছে পড়ছে বা কে কতবেশি নম্বর পেল সেটাকেই প্রাধাণ্য দেয়া হয়। এতে শিশুদের স্বাভাবিক বেড়ে উঠা বাধাগ্রস্ত হয়।”

শিশুদের স্বাভাবিক বিকাশে বাধা না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, “ফুলকে যেমন পরিপূর্ণভাবে ফুটতে দিলে তা চারিদিকে সুগন্ধ ছড়ায় তেমনি শিশুদের তাদের মতো করে বড় হওয়ার সুযোগ দিলে তারা সমাজের জন্য কল্যাণ বয়ে আনতে পারে।

“এর জন্য দরকার শিশুদের জন্য সব ধরনের সহযোগিতা নিশ্চিত করা। শিশুকে শিশুর মতোই থাকতে দিতে হবে। শিশুর ব্যক্তিত্ব ও আগ্রহের প্রতি আস্থা রাখতে হবে। অহেতুক বা ইচ্ছার বিরুদ্ধে শিশুদের ওপর কিছু চাপিয়ে দিলে শিশুদের স্বাভাবিক বিকাশ বিঘ্নিত হতে পারে, তাদের স্বপ্ন ভেঙ্গে যেতে পারে।”

শিশুদের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রপতি বলেন, “আজকের এই অনুষ্ঠান একান্তই তোমাদের। নানা বিষয়ের প্রতিযোগতায় অংশ নিয়েছ তোমরা। তোমাদের মধ্যে কেউ বিজয়ী হয়েছে, কেউ বিজেতা। আর যারা অংশ নিয়েছ কিন্তু জয়ী হতে পারোনি-তারাও কিন্তু বন্ধুদের বিজয়ের অংশীদার। কারণ তোমরা প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছ বলেই অন্যেরা জয়ী হতে পরেছে।

“আমি আশা করব তোমরা সারাজীবন প্রতিযোগিতার এই মানসিকতাকে ধরে রাখবে এবং ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গীতে দেখবে। তাহলেই জীবনের সকল প্রতিযোগিতায় সাফল্য পাবে। এখন থেকেই সত্যকে-সত্য আর মিথ্যাকে-মিথ্যা বলতে চর্চা করবে। ন্যায়-অন্যায় ও ভালো-মন্দের পার্থক্য বুঝতে শিখবে। নিজেরা কখনো অন্যায় করবে না এবং অন্যরাও যাতে অন্যায় করতে না পারে সে চেষ্টা করবে। তাহলেই তোমরা জীবনে সফলকাম হবে।”

রাষ্ট্রপতি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক শিশুদের মানব সম্পদে পরিণত করতে মানসিকতা পরিবর্তনের আহ্বান জানান।

শিশু একাডেমি মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন একাডেমির চেয়ারম্যান সেলিনা হোসেন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহিলা ‍ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, মহিলা ও শিশু বিষয়ক সচিব নাছিমা বেগম।

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পদক ও সনদ বিতরণ করেন।a

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 Mohajog