1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

চার স্থানে আবদুর রহমানের জানাজা, দাফন বনানী কবরস্থানে

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৫৮ বার

সাবেক রাষ্ট্রপতি আবদুর রহমানের জানাজা চার স্থানে অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় বরিশাল জেলা স্কুল মাঠে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে করে মরহুমের মরদেহ বরিশালে নেয়া হবে।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দ্বিতীয় জানাজা, বাদ জোহর হাইকোর্টের সামনে তৃতীয় জানাজা এবং বাদ আসর গুলশানের আজাদ মসজিদে চতুর্থ জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান শুক্রবার রাতে এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, সংসদ ভবনে মরহুমের জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার বিষয়ে এখনো সময় চূড়ান্ত করা হয়নি।

শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। তিনি বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।

এর আগে শুক্রবার সকালে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বনানীর বাসভবন থেকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে। মরহুমের ছেলে মাহমুদ হাসান বিশ্বাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

১৯৯১ সালে বিএনপি সরকারের সময় আবদুর রহমান বিশ্বাস রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে ১৯৯৬ সালের ৮ অক্টোবর পর্যন্ত সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

ফিরে দেখা আবদুর রহমান বিশ্বাসের জীবন

দেশের দক্ষিণাঞ্চলের জেলা বরিশালের শায়েস্তাবাদে ১৯২৬ সালে ১ সেপ্টেম্বর আবদুর রহমান বিশ্বাস জন্ম গ্রহণ করেন। বরিশাল শহরেই তিনি স্কুল ও কলেজজীবন শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। পরে তিনি আইন বিষয়ে অধ্যয়ন করেন।

আবদুর রহমান বিশ্বাস ১৯৫০-এর দশকে আইন পেশায় যোগদান করেন। তিনি ১৯৬২ এবং ১৯৬৫ সালে পূর্ব পাকিস্তান আইনসভার সদস্য নির্বাচিত হন।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি ১৯৬৫ থেকে ১৯৬৯ পর্যন্ত পূর্ব পাকিস্তানের সংসদীয় সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৭ সালে তিনি পাকিস্তান প্রতিনিধিদলের সদস্য হিসেবে জাতিসংঘের ২২তম অধিবেশনে যোগদান করেন। তিনি ১৯৭৪ এবং ১৯৭৬ সালে দুবার বরিশাল বার সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন।

১৯৭৭ সালে তিনি বরিশাল পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৭৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বরিশাল থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৯-৮০ সালে তিনি জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভায় পাটমন্ত্রী এবং ১৯৮১-৮২ সালে বিচারপতি আবদুস সাত্তারের মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ছিলেন।

রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পূর্বে আবদুর রহমান বিশ্বাস ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ৪ এপ্রিল ১৯৯১ তিনি জাতীয় সংসদের স্পিকার নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি একই বছরে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে ১৯৯৬ সালের ৮ অক্টোবর পর্যন্ত সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। শোকবার্তায় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেছেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog