1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:০২ অপরাহ্ন

গরম করলেই বিষ

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৭
  • ২৫৬ বার

ব্যস্ত জীবনে প্রতিদিন রান্না করার ঝক্কিটা নিতে চায় না অনেকেই। তাই ফ্রিজে রাখা খাবার গরম করে খেয়ে ফেলি আমরা। তবে সব খাবারই কিন্তু বার বার গরম করে খাওয়া ঠিক না। কিছু খাবার একাধিকবার গরম করলে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

এমন কিছু খাবার আছে যেগুলো একাধিকবার গরম করলে তাতে থাকা কেমিক্যাল পাল্টে যায়। এতে করে সেসব খাবারের পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে তা উল্টো শরীরের ক্ষতি করে। এমনকি সেসব খাবার বিষক্রিয়া তৈরি করে অসুস্থ করে তুলতে পারে আপনাকে। এই যেমন রান্না করা মুরগির মাংস যদি একাধিকবার গরম করে খাওয়া হয়, তাতে হজমের খুব ক্ষতি হয়। তাই যেসব খাবার একাধিকবার গরম করা অনুচিত সেগুলো জেনে নেই চলুন-

ভাত : আমরা যে ভাত খাই, তার চালে ব্যাকটেরিয়া থাকে। রান্না করার পরও সেসব ব্যাকটেরিয়া বেঁচে থাকে। তাই দীর্ঘক্ষণ বাইরে রাখা ভাত খাওয়া উচিত নয়। সেই ভাত আবারো গরম করলে ব্যাকটেরিয়া ঠিকই শরীরের ক্ষতি করবে। এতে করে বমি ও ডায়রিয়া হতে পারে আপনার।

আলু : আলুতে প্রচুর প্রোটিন থাকে। তবে একাধিকবার গরম করা হলে আলু তার পুষ্টিগুণ হারায়। এরপর ঠান্ডা করে আবারো যদি গরম করা হয় তাহলে তাতে ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেয়, এতে করে ফুড পয়জন তৈরি হতে পারে।

মাশরুম : মাশরুমেও প্রচুর প্রোটিন থাকে। তবে রান্নার পর ঠান্ডা করে আবারো গরম করা হলে এই মাশরুম শরীরের জন্য খুব ক্ষতিকর হতে পারে। এতে হজমের সমস্যা হতে পারে, পাকস্থলীতে ব্যথা হতে পারে। এমনকি হার্টের জন্যেও ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই রান্নার পর ঠান্ডা হলেই মাশরুম খেয়ে ফেলা উচিত। নইলে  ফ্রিজে রেখে পরদিনই নামিয়ে ঠান্ডা অবস্থায় খেতে হবে। আবার গরম করা যাবে না।

ডিম : ডিম রান্নার পর আবারো গরম করা হলে আপনার হজমের জন্য অনেক ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে তা।

মুরগীর মাংস : মুরগীতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে। তাই একাধিকবার গরম করা হলে মুরগীর প্রোটিনের গঠন পাল্টে যায়, এতে করে হজমের জন্য খবু ক্ষতির কারণ হয়ে উঠে। তাই রান্না করা মুরগী ঠান্ডা করেই খাওয়া ভালো। কারণ রান্নার একদিন বা কয়েকদিন পর আবারো গরম করা হলে মুরগীর মাংস হজমের খুব ক্ষতি করতে পারে। যদি দ্বিতীয়বার গরম করতেই হয়, তাহলে চুলায় অল্প আঁচে অনেকক্ষণ ধরে গরম করে তবেই তা খাওয়া উচিত।

সবুজ শাকসবজি : পালং শাকের মতো সবুজ শাক সবজিতে আয়রন ও নাইট্রেট থাকে অনেক। তাই এগুলো একাধিকবার গরম করা হলে ক্যানসারের জীবাণু তৈরি করতে পারে শরীরে। তাই সবুজ শাকসবজি রান্নার পরই খেয়ে ফেলা উচিত। এগুলো ফ্রিজে রেখে পরদিন বা কয়েকদিন পর খাওয়া একেবারেই ঠিক না।

দ্বিতীয়বার বা একাধিকবার খাবার নিরাপদে গরম করতে কিছু বিষয় মনে রাখতে হবে-

* খাবার যদি আবারো গরম করতে হয় তবে তা দ্রুত করতে হবে। এক্ষেত্রে খাবারে ১৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইট উত্তাপ দিতে হবে।

* ফ্রিজ থেকে রান্না করা সে পরিমাণ খাবারই আবার গরম করুন, যতোটুকু খাবেন আপনি।

* সব খাবারের খাদ্য উপাদানই একটি আরেকটির চেয়ে আলাদা। দ্বিতীয়বার গরম করার পর সেগুলো উত্তাপ যাতে ঠিক মতো ধরে রাখতে পারে, সে জন্য ঢেকে রাখুন।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, স্টেপ টু হেলথ

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog