1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন

রোহিঙ্গা শিবিরে অভিযানে আটক ২১

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৫০ বার

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় রোহিঙ্গাদের পাঁচটি আশ্রয়শিবিরে গতকাল সোমবার রাতে পুলিশ ও প্রশাসন অভিযান চালিয়েছে। সেখান থেকে রোহিঙ্গাসহ ২১ জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে পাঁচজন বিদেশি নাগরিককে প্রথমে আটক করার পর মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আটক করা ২১ জনের মধ্যে ১১ জন বাংলাদেশি ও ১০ জন রোহিঙ্গা। পুলিশের বরাত দিয়ে ইউএনও মিকারুজ্জামান বলেন, আটক ব্যক্তিদের মধ্যে ১০ জনকে সর্বনিম্ন সাত দিন থেকে সর্বোচ্চ ছয় মাস পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত ১০ জনের মধ্যে ছয়জন রোহিঙ্গা ও চারজন বাংলাদেশি। ত্রাণসামগ্রী মজুত করাসহ বিভিন্ন অপরাধে চার বাংলাদেশিকে সাজা দেওয়া হয়। বাংলাদেশি পাসপোর্ট রাখায় ছয় রোহিঙ্গাকে সাজা দেওয়া হয়। আটক করা অন্য ১১ জনকে উখিয়া থানা-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খালেদ মাহমুদ জানান, উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে সন্দেহজনক ফোরাঘুরির সময় সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত পুলিশ তাদের আটক করে।

বিদেশি নাগরিকদের মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রবেশের অনুমতি দেখাতে পারেননি। বিদেশিদের মধ্যে ছিলেন একজন চায়নিজ ও চারজন যুক্তরাজ্যের নাগরিক।

‘অন্যরা দেশের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তাদের অধিকাংশই মাদ্রাসা শিক্ষক ও মসজিদের ইমাম। তারা এনজিওকর্মীর ছদ্মবেশে শিবিরের ভেতরে ঢুকে সন্দেহজনক ঘোরাঘুরি করছিলেন। তাদের মধ্যে ১০ জনকে এক মাস থেকে ছয় মাস কারাদণ্ড দেওয়া হয়। অন্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়।’

গত ৩ অক্টোবর কুতুপালং ও বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে সন্দেহজনক ঘোরাঘুরির সময় ১৫০ জনকে আটক করা হয়। তখন থেকে নিরাপত্তা রক্ষাসহ বিশৃঙ্খলা এড়াতে রোহিঙ্গা শিবিরে বিনা প্রয়োজনে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে জেলা প্রশাসন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খালেদ মাহমুদ, জেলা প্রশাসনের চারজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, উখিয়া পুলিশ, আনসার ও উখিয়ার ইউএনও অভিযানে অংশ নেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog