1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

রংপুরে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৯৭ বার

রংপুরে ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ সংগঠিত হওয়া সহিংসতা, হামলা এবং অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে আজ মঙ্গলবার সেখানে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক।

এছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি টিপু মুনসী, এমপি নারায়ণ চন্দ্র। পরিদর্শন শেষে এলাকাবাসী ও সুধী সমাজের সঙ্গে তারা মতবিনিময় করবেন।

আগের দিন সোমবার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন রাজশাহীর ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার অভিজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

একই সময় ঠাকুরপাড়া পরিদর্শন করেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমীন হাওলাদার। তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন এবং সবার খোঁজখবর নেন।

এদিকে রংপুরে হিন্দুদের বাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার মামলায় ১২ জামায়াতকর্মীসহ আরও ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ নিয়ে গ্রেপ্তারের সংখ্যা দাঁড়ালো ১২৪ জনে। ঠাকুরপাড়ায় স্থাপন করা হয়েছে পুলিশের দুটি ক্যাম্প।

ঠাকুরপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্তদের পূর্নবাসনে কাজ চলছে জোর গতিতে। চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যেই নতুন ঘর পাচ্ছেন ১০ পরিবার।

হিন্দুদের নিরাপত্তায় ঠাকুরপাড়ায় ২৪ ঘণ্টা টহল দিচ্ছে পুলিশের চারটি টিম। নিরাপত্তা জোরদার করায় আস্থা ফিরে পেয়েছে সংখ্যালঘুরা।

নতুন ঘর নির্মাণের আগ পর্যন্ত একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে জেলা প্রশাসন।

এর আগে শনিবার আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল গঙ্গাচড়া উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া গ্রামে পৌঁছান। দুই সদস্যের প্রতিনিধি দলে ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও দিনাজপুরের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

উল্লেখ্য, মহানবী (সা.) কে নিয়ে ফেসবুকে অবমাননাকর ছবি পোস্ট করার অভিযোগে গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর রংপুর গঙ্গাচড়া উপজেলার হরকালি ঠাকুরপাড়া গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্তত ৩০টি বাড়িতে হামলা চালায় বিক্ষুব্ধ জনতা। এর মধ্যে অন্তত বেশ কয়েকটি বাড়িতে আগুন লাগানো হয়। লুটপাট হয় অনেক বাড়িতে।

হামলা ঠেকাতে গেলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে একজন নিহত এবং এক পুলিশসহ প্রায় অর্ধশত সদস্য আহত হয়। এ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শতাধিক রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে।

পরে ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু রাফা মোহাম্মদ আরিফকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল-এ) সাইফুর রহমান এবং সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান। কমিটিকে আগামী সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog