1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:১০ পূর্বাহ্ন

‘আসামে মায়ানমারের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা হচ্ছে’

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৭
  • ১১৩ বার

ভারতের বিজেপিশাসিত আসামে মায়ানমারের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন জমিয়তে ওলামায়ে হিন্দের প্রধান মাওলানা আরশাদ মাদানী। আসামে মুসলিমদের একাংশের নাগরিকত্ব নিয়ে টানাপড়েন প্রসঙ্গে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আসাম অ্যাকশন কমিটি রাজ্যে মুসলিমদের নাগরিক অধিকার নিয়ে আন্দোলন চালাচ্ছে। কমিটির পক্ষ থেকে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেন, ‘রাজ্যে ভোটার নথিভুক্তকরণে ৪৮ লাখ বিবাহিতা মুসলিম নারীর নাম অপসারণের চেষ্টা করা হচ্ছে। তাদের অধিকার কেড়ে নেয়া ও তাদের শিশুরা যাতে শিক্ষা না পায় এবং তাদের দেশের বাইরে বের করে দেয়া যায় সেজন্য এসব করা হচ্ছে। যদি এরকম চলতে থাকে তাহলে আসামে মায়ানমারের পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে।’

আসাম অ্যাকশন কমিটি বলছে, একদিকে, জাতীয় নাগরিক নিবন্ধনের কাজ চলছে, অন্যদিকে হাইকোর্ট এমন সিদ্ধান্ত দিয়েছে যাতে ৪৮ লাখ মুসলিম নারীর নাগরিকত্ব সঙ্কটের মধ্যে পড়েছে। মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেন, তারা হাইকোর্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে যাবেন।

রাজ্যে শিক্ষা ও অন্য অনগ্রসরতার কারণে অনেকেই তাদের জন্ম প্রমাণপত্র তৈরি করতে পারেননি। যদি কোনো মুসলিম মেয়ের বিয়ের সময় গ্রামপ্রধান প্রমাণপত্র দেয় তাহলে তাকে নাগরিকত্বের প্রমাণ হিসেবে গ্রহণ করা হয়। কিন্তু আদালত এ ধরণের প্রমাণপত্রকে বাতিল বলে ঘোষণা করেছে। এরপরেই মুসলিম নারীদের নাগরিক অধিকার সুরক্ষিত রাখার আন্দোলন শুরু হয়েছে।

মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেন, ‘সরকারকে আসাম চুক্তি ও আইন-কানুন গুরুত্ব সহকারে অনুসরণ করা উচিত। একদিকে কেন্দ্রীয় সরকার নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করে অন্য দেশ থেকে আসা হিন্দুদের নাগরিকত্ব ও বিশেষ অধিকার প্রদান করছে। কিন্তু আসল নাগরিকদের বাংলাদেশি বা বিদেশি বলে অভিহিত করে দেশ থেকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করছে। সরকার এভাবে দ্বৈত মনোভাব ও ধর্মের নামে নীতি গ্রহণ করছে।’

আসামে ধর্ম ও ভাষার নামে বৈষম্য করা হলে তা দেশের সংবিধান ও মূল্যবোধের বিরোধী হবে এবং একে কোনোভাবেই বৈধতা দেয়া যায় না বলেও মাওলানা আরশাদ মাদানী মন্তব্য করেন।

এবার মুসলিম বিতাড়ন প্রক্রিয়া শুরু করছে ভারত

এবার অবৈধভাবে ভারতে থাকা মুসলিমদের বিতাড়নের প্রক্রিয়া শুরু করেছে দেশটি। এর প্রথম ধাপ দেশটির অঙ্গরাজ্য আসাম থেকেই শুরু করা হয়েছে।

আসাম থেকে সমস্ত বাংলাদেশি মুসলিমদের বের করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী।

তিনি জানিয়েছেন, আসামে বাংলাদেশি মুসলিমদের সংখ্যা ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছে। আর কমে যাচ্ছে হিন্দুদের সংখ্যা। হিন্দুদের সংখ্যা যাতে কমে না যায়, তার জন্যই ওই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে, ভারতের আর কোনো রাজ্য থেকে বাংলাদেশি মুসলিমদের বিতাড়ন করা হবে কী না, সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এই মুহূর্তে প্রায় দুই কোটি বাংলাদেশি মুসলিম ভারতে রয়েছেন বলে দাবি করছে দেশটি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog