1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:২৬ অপরাহ্ন

রিজার্ভ চুরি নিয়ে বিএনপির কথাই সত্যি হল: রিজভী

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৩১ মার্চ, ২০১৮
  • ৭৬ বার

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি নিয়ে এফবিআইয়ের তদন্তে বিএনপির কথাই ফলেছে বলে দাবি করেছেন দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহসচিব রুহুল কবির রিজভী।

এফবিআইর এক তদন্ত কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে এই দাবি করেন বিএনপি নেতা।

তিনি শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “রয়টার্সের প্রতিবেদেন বলা হয়েছে, নিউ ইয়র্ক ফেডারেল রিজার্ভ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮১ মিলিয়ন ডলার চুরির ঘটনা রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে বলে এফবিআই নিশ্চিত করেছে।

“দলের পক্ষ থেকে আমরা যে অভিযোগ করেছিলাম, সেটি এখন অকাট্ট সত্য হয়ে প্রমাণিত হল। এত বড় ব্যাংক ডাকাতির ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন অর্থমন্ত্রী কেন এত বছর আটকিয়ে রেখেছেন, এফবিআইয়ের রিপোর্টে সেটি এখন পরিষ্কার হয়ে গেছে।”

৩০ মার্চ প্রকাশিত রয়টার্সের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাইবার জালিয়াতির মাধ্যমে দুই বছর আগে বাংলাদেশের রিজার্ভ চুরির পেছনে ‘রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা’ রয়েছে এফবিআই কর্মকর্তা বলছেন। তবে তিনি কোনো রাষ্ট্রের নাম উল্লেখ করেননি।

যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক থেকে বাংলাদেশের অর্থ হাতিয়ে নিতে এই জালিয়াতির পেছনে উত্তর কোরিয়ার হাত রয়েছে বলে নানা সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মহল থেকে দাবি তোলা হয়েছে।

তবে বিএনপি নেতা রিজভী এই ‘রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা’ বলতে বাংলাদেশ সরকারকেই দায়ী করছেন।

বিএনপি নেতারা আগে থেকেই বলে আসছিলেন, এই চুরির পেছনে বাংলাদেশ সরকারের হাত রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, “ক্ষমতাসীনরা সাধারণ মানুষের টাকা চুরির উন্নয়ন ছাড়া আর কোনো উন্নয়নই করে নাই। দুর্নীতির ছদ্মনাম আওয়ামী লীগ। এত বড় চুরি-চোট্টামি হয়ে গেল, অথচ তাদের (সরকার) কোনো অনুশোচনা নেই।

“জনশ্রুতি আছে যে, এই রিজার্ভ চুরির পেছনে এমন একজন ক্ষমতাধর ব্যক্তি আছেন, যার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষমতা সরকারের নেই। বাংলাদেশ নামক স্টেটের উপরে সুপার স্টেট কার্যকর আছে বলেই জনগণের টাকা হাওয়ায় মিলিয়ে যায়। এই সুপার স্টেট কারা, তা জনগণ জানেন। তাদের গদি ঘাঁটলে না কি সরকারের গদিও নড়ে যাবে।”

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে ‘সলিডারিটি গ্রুপ ফর বাংলাদেশ’  ও ‘এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশন’র প্রকাশিত বিবৃতির প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, “মানবাথিকার সংগঠনগুলোর বিবৃতিতে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির যে ভয়াবহতা তুলে ধরা হয়েছে, বাস্তবে ভয়াবহতা আরও ব্যাপক।”

সংবাদ সম্মেলনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক মাকসুদুল আলম খন্দকার, নাটোরের গুরুদাসপুরের মশিউর রহমান বাবুল, শহিদুল শেখ, আসাদুজ্জামান, মিজানুর রহমানসহ নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানানো হয়।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলা যুবদলের সভাপতি শফিকুর রহমানের উপর ‘ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের’ হামলার নিন্দাও জানান রিজভী।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে রিজভীর সঙ্গে ছিলেন আবদুল হাই, খায়রুল কবির খোকন, রুহুল কুদ্দস তালুকদার দুলু, আবদুস সালাম আজাদ, শামসুল আলম তোফা, আমিনুল ইসলাম।

 

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog