1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:২৭ অপরাহ্ন

২৩ দিনেও খোঁজ মেলেনি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সহকারী পরিচালক জাফরের

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৩৯ বার

বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক আবু জাফর মজুমদার ওরফে রুবেল ২৩ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। গত ৫ এপ্রিলের পর থেকে তিনি অফিস করছেন না।

প্রশ্নফাঁস ও পরীক্ষায় জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠার পর থেকে তিনি কর্মস্থলে আসছেন না বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, আবু জাফর সর্বশেষ অফিস করেছেন গত ৫ এপ্রিল। এর পরের দিন রাতে থেকে তিনি উধাও। ডিবি পুলিশ কিংবা বাংলাদেশ ব্যাংক এখনও তার কোনো খোঁজ পাননি। বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) সকালে তার স্ত্রী বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপককে জানিয়েছেন, তার স্বামী অসুস্থ থাকার কারণে অফিস আসতে পারবেন না।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, অফিসিয়ালভাবে কোনো ছুটি না নিয়েই ছুটি কাটাচ্ছেন সহকারী পরিচালক আবু জাফর মজুমদার। কি কারণে অফিসে আসছেন না, তার (আবু জাফর মজুমদার) বক্তব্য ছাড়া সঠিক কারণ বলা যাচ্ছে না।

নাম না প্রকাশের শর্তে বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, আমরা সংবাদমাধ্যম থেকে জাফরের প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি জেনেছি। কিন্তু তিনি নিজে কিছুই জানাননি। বুধবার তার স্ত্রী অপরিচিত একটি মোবাইল নম্বর থেকে ফোন করে জানিয়েছিল জাফর সাহেব অসুস্থ। এরপর সেই মোবাইল নম্বরটিতে কল করা হলে অপর প্রান্ত থেকে জানানো হয়, এটি একটি মোবাইল দোকানের নম্বর, অর্থাৎ যেখান থেকে আবু জাফরের স্ত্রী ফোন করে অসুস্থতার কথা জানিয়েছিল। এছাড়া তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরটি বন্ধ রয়েছে।

সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রশ্ন ফাঁসকারীচক্রের ১০ জনকে আটক করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে এই চক্রের হোতাদের কয়েকজনের পরিচয় বেরিয়ে আসে। যাদের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তা আবু জাফর মজুমদারের নাম। এরপর থেকেই তাকে গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছেন গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

গত ১৭ এপ্রিল ভর্তি ও বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষায় ইলেকট্রিক ডিভাইসের মাধ্যমে উত্তর সরবরাহকারীদের মূলহোতা পুলকেশ দাশ ওরফে বাচ্চুসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ।

এদিকে গত ২০ এপ্রিল সোনালী ব্যাংকের লিখিত পরীক্ষার সময় ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে পরীক্ষায় অংশ নেয়া চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

ডিবি উত্তর বিভাগের ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিম শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টা থেকে ১১টা ৩৫ মিনিটের মধ্যে অভিযান চালিয়ে রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজ, মোহাম্মদপুর থানাধীন লালমাটিয়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় এবং তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারকৃতরা বিশেষ ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস ও মোবাইল ফোন ব্যবহার করে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও তারা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে হলের বাইরে থেকে প্রশ্নের উত্তর সরবরাহ করত। এ সংক্রান্তে তাদের বিরুদ্ধে লালবাগ থানায় একটি মামলা হয়েছে।

ডিএমপি গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগের (উত্তর) এডিসি গোলাম সাকলাইন বলেন, আবু জাফর গাঢাকা দিয়েছে বলে জানা গেছে। তবে তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে। আমরা মূল হোতাদের নাম পরিচয় পেয়েছি। এরই মধ্যে জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog