1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

করোনাভাইরাস: বাজার-গণপরিবহনে অধিক ঝুঁকি

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৯ বার

দেশে দুটি স্থান থেকে করোনায় আক্রান্ত বেশি হচ্ছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে গণপরিবহন। অপরটি বাজার। আর এখন পর্যন্ত দেশে যতো করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তার বড় অংশই হয় গণপরিবহন না হয় বাজারে গেছেন। গত বৃহস্পতিবার আইইডিসিআরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই কথা বলা হয়েছে।

আইইডিসিআর বলছে, করোনায় আক্রান্তদের বড় অংশই হয় গণপরিবহন ব্যবহার করেছেন, নয়তো বাজারে গেছেন।

এদিকে করোনা সংক্রমণের বিধিনিষেধ আরোপের চারদিন পর গতকাল দোকানপাট ও শপিংমল খুলে দেয়া হয়েছে। এই দিন দোকানগুলোতে ছিল প্রচণ্ড ভিড়। আর স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের অনেকেই ছিলেন উদাসীন। এই কারণেই করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

গণপরিবহন ও বাজারের বাইরেও সভা-সেমিনারসহ অন্য জায়গা থেকেও করোনায় সংক্রমিত হচ্ছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর। এর মধ্যে রয়েছে, জনসমাগমস্থল, উপাসনালয়, এক বিভাগ থেকে আরেক বিভাগে ভ্রমণ, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র, পর্যটনকেন্দ্র এবং সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের হিস্ট্রি পর্যালোচনা করে সংক্রমণ ছড়ানোর ক্ষেত্রে ঝুঁকিপূর্ণ এসব উৎসস্থল চিহ্নিত করা হয়েছে।

‘আক্রান্ত রোগীদের ৬১ শতাংশের গণপরিবহন ব্যবহার ও বাজারে যাওয়ার ইতিহাস রয়েছে, ৩০ শতাংশের বেশি মানুষ উপাসনালয় ও জনসমাগমস্থলে গিয়েছে। আইইডিসিআর গত ৫ মার্চ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত প্রায় সাড়ে আট হাজার করোনা রোগীর তথ্য পর্যালোচনা করেছে।

এবিষয়ে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক তাহমিনা শিরিন বলেন, গত ৫ মার্চ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৮ হাজার আক্রান্ত ব্যক্তির তথ্য তারা পর্যালোচনা করেছেন। এই ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি করা হয়েছে।

অন্যদিকে সাড়ে আট হাজার রোগীর তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, তাদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন ২২ শতাংশ এবং স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে গিয়েছিলেন ২৬ শতাংশ, সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন ১২ শতাংশ এবং আন্তঃবিভাগ ভ্রমণ করেছিলেন ১৩ শতাংশ।

এদিকে দেশে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে নতুন রোগীর শনাক্তের সঙ্গে সঙ্গে মৃত্যুও বাড়ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর গত ১০ দিন ধরে অর্ধশতাধিক মানুষের মৃত্যুর তথ্য দিচ্ছে। গত ১০ দিনে ৫৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চার দিন ধরে মৃত্যু ৬০’র ওপরে।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসময়ে রোগী শনাক্ত হয় ৭৪৬২ জন। এই সময় দেশের ২৪৩টি ল্যাবরেটরিতে ৩১ হাজার ৮৭৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ৩১ হাজার ৫৬৪টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৯ লাখ ৪৭ হাজার ৪১২টি। পরীক্ষায় নতুন ৭ হাজার ৪৬২ জনসহ এখন পর্যন্ত মোট ৬ লাখ ৭৩ হাজার ৫৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এসময় নতুন ৬৩ জনসহ মোট ৯ হাজার ৫৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫১১ জন। এ পর্যন্ত মোট ৫ লাখ ৬৮ হাজার ৫৪১ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের ঘোষণা আসে। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog