1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  3. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন

ঢাকা অচলের মত কঠোর কর্মসূচিতে যাবে শিক্ষার্থীরা

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৬
  • ১২২ বার

উইলস লিটল ফ্লাওয়ারের শিক্ষার্থী রিশার হত্যাকারীকে গ্রেফতার করা না হলে ঢাকা অচল করার মতো কঠোর আন্দোলন করার কথা ভাবছে শিক্ষার্থীরা। এরই অংশ হিসেবে ঢাকা শহরের কয়েকটি মূল সড়ককে চিহ্নিত করে সেগুলোতে অবস্থান ও অবরোধের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। আন্দোলনকারীদের মধ্যে দায়িত্বশীল একজন শিক্ষার্থী জাগো নিউজকে এ বিষয়টি জানিয়েছেন।

ওই শিক্ষার্থী জানান, রিশা মারা যাওয়ার তিনদিন পেরিয়ে গেলেও সামান্য একজন অপরাধীকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারছে না। আগামী ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অপরাধী ওয়াদুলকে গ্রেফতার করা না হলে ঢাকার সকল শিক্ষার্থীদের একসঙ্গে নিয়ে ঢাকা অচলের পরিকল্পনা রয়েছে।

এর আগে গত বুধবার সুরাইয়া আক্তার রিশাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় ওবায়দুল নামে এক বখাটে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার সকালে মারা যায় রিশা। অপরাধী ওবায়দুলকে গ্রেফতারের দাবিতে তিনদিন ধরে রাজধানীর কাকরাইল মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা।

সর্বশেষ মঙ্গলবারের সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালনের পর রিশা হত্যার প্রতিবাদে সারাদেশের স্কুল-কলেজগুলোয় মানববন্ধনের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করে শিক্ষার্থীরা।

উইলস লিটল ফ্লাওয়ার কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী কাজী তাওহীদ বলেন, বৃহস্পতিবার সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের দুপুর ১২টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর বাইরের সড়কের পাশে অবস্থানের অনুরোধ জানাচ্ছি। আমরাও আমাদের স্কুলের বাইরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবো। তবে সেদিন পর্যন্ত যদি ওবায়দুলকে গ্রেফতার না করা হয় তাহলে সেদিন আরো কঠোর আন্দোলনের মতো ঘোষণা আসতে পারে।

সোমবারের মতো মঙ্গলবারও শিক্ষার্থীদের অবরোধ আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সেখানে উপস্থিত হন গণজাগরণ মঞ্চের একাংশের মুখপাত্র ড. ইমরান এইচ সরকার। উপস্থিত ছিলেন লাকিসহ গণজাগরণ মঞ্চের একাধিক সক্রিয় কর্মী।

এদিকে মঙ্গলবার শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ভিন্ন চিত্র দেখা গেছে। নিজেদের অভিভাবক পরিচয়দানকারী কয়েকজন নারী শিক্ষার্থীদের ড. ইমরান এইচ সরকারের কথায় আন্দোলন পরিচালনায় বারণ করেন। আন্দোলনের মাঝে নিজেকে অভিভাবক ও সাংবাদিক পরিচয় দানকারী এক নারী আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী কাজী তাওহীদকে বলেন, ‘তোমরা রিশার হত্যাকারীর বিচার চাও নাকি আফসানারটা। ইমরানের কথায় আন্দোলন চললে আমরা (অভিভাবক) তোমাদের সঙ্গে থাকবো না। তোমাদের দাবি কোনো দিনই পূরণ হবে না। ইমরানের কথায় কোনো আন্দোলন চলবে না। আন্দোলনে ইমরানকে রাখা যাবে না।’

উত্তরে শিক্ষার্থী কাজী তাওহীদ বলেন, ‘ইমরান ভাই আমাদের সঙ্গে সাধারণ মানুষের মতোই যোগ দিয়েছেন। আমাদের সঙ্গে আন্দোলন করছেন। তার কথায় আন্দোলন চলবে কেন? আমাদের আন্দোলন রিশার জন্য। তবে আমরা তনু, মিতু, আফসানাদের হত্যার বিচারও চাই। তাহলে আর এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না।’

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog