1. sardardhaka@yahoo.com : adminmoha :
  2. suzan36076@gmail.com : azad azad : azad azad
  3. mohajog@yahoo.com : Daily Mohajog : Daily Mohajog
  4. nafij.moon@gmail.com : Nafij Moon : Nafij Moon
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন

প্রসূতি-নবজাতকের সুরক্ষায় ৯ দেশের হেলথ নেটওয়ার্কে বাংলাদেশ

মহাযুগ নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ৫৪৯ বার

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যুর হার ২০২২ সালের মধ্যে বর্তমানের অর্ধেকে নামিয়ে আনতে এক ছাতার নিচে এসেছে ৯টি দেশ। বাংলাদেশ ছাড়াও আইভরি কোস্ট, ইথিওপিয়া, ঘানা, ভারত, মালাউয়ি, নাইজেরিয়া, তাঞ্জানিয়া ও উগান্ডা জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার উদ্যোগে নতুন এ ‘হেলথ নেটওয়ার্কে’ যুক্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন এ নেটওয়ার্ক সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মাতৃস্বাস্থ্য, নবজাতক ও শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় একসঙ্গে কাজ করবে। জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, এখনও প্রতিবছর গর্ভধারণ ও সন্তান জন্মদানের সময় বিশ্বজুড়ে অন্তত ৩ লাখ ৩ হাজার মায়ের মৃত্যু হচ্ছে। জন্মের প্রথম মাসেই মারা যাচ্ছে অন্তত ২৭ লাখ শিশু।

প্রসূতি এবং সদ্যজাত শিশুর মৃত্যুহার কমানো, তাদের উন্নত স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্বন্ধে সচেতন করতে এই নেটওয়ার্ক ভূমিকা রাখবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, নেটওয়ার্ক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ ও অন্যান্য অংশীদার সংস্থার সঙ্গে মিলে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের একটি ওয়েবভিত্তিক কমিউনিটি তৈরি করবে, যেখানে স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে বিভিন্ন কৌশল, সৃজনশীল ধারণা, তথ্য ও অভিজ্ঞতার সন্নিবেশ থাকবে।

নেটওয়ার্ক স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন বিষয়ে জাতিসংঘের নতুন ৮টি মানদণ্ড নিয়েও কাজ করবে; যেগুলোর মধ্যে আছে অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শ নেওয়া, বিশুদ্ধ পানি ও ভালো চিকিৎসা সামগ্রীর ব্যবস্থা করা, রোগীর ব্যক্তিগত গোপনীয়তা নিশ্চিত করা।

নতুন এ নেটওয়ার্ক ২০৩০ সালের মধ্যে প্রসূতি, নবজাতক ও শিশু মৃত্যুর হার শূন্যে নামিয়ে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মাতৃত্ব, নবজাতক ও শিশু চিকিৎসা বিভাগের পরিচালক ড. অ্যান্থনি কোস্টেলো।

তিনি বলেন, “সন্তানসম্ভবা প্রতিটি মা এবং সদ্যজাত শিশুর অধিকার রয়েছে তাদের কমিউনিটির মধ্যে থাকা সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য সেবা পাওয়ার।

“গত কয়েক দশকে স্বাস্থ্য-সেবা কেন্দ্রগুলোতে সন্তান জন্মদান ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। এখন মনোযোগ দিতে হবে চিকিৎসার মানোন্নয়নে, যার মাধ্যমে তারা এই খাতে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারে।”

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Mohajog